Home | স্বাধীন | ‘ওরা নমিনেশন পেপার সাবমিট না করে ক্ষমতায় আসতে চায়’

‘ওরা নমিনেশন পেপার সাবমিট না করে ক্ষমতায় আসতে চায়’

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নেতা ও জেএসডির সভাপতি আ স ম আবদুর রব বলেছেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর চতুর্দিকে যে সাঙ্গপাঙ্গ আছেন, ওরা চায় না ওরা নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে জিতে আসুক। ওরা ২০১৪ সালের মতো নমিনেশন পেপার সাবমিট না করে ক্ষমতায় আসতে চায়।’

আজ বৃহস্পতিবার রাজশাহীতে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন আ স ম আবদুর রব। আগামীকাল শুক্রবার রাজশাহীর ঐতিহাসিক মাদ্রাসা ময়দানে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের বিভাগীয় সমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে। এ সময় তাঁর পাশে ছিলেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান বরকত উল্লাহ বুলু।
একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় এসব কথা বলেন আ স ম রব। আ স ম রব বলেন, ‘নির্বাচন কি আমরা করব নাকি হুদা সাহেব করবেন? নির্বাচন কি শেখ হাসিনা একা করবেন নাকি দেশের জনগণ ভোট দেবে? তাহলে আমরা যাতে নির্বাচনে আসতে পারি সে রাস্তাটা করে দেওয়া দরকার উনার।’

রব আরো বলেন, ‘যদি সাংঘর্ষিক দিকে নিয়ে যেতে চান দেশকে, একটা কঠিন সময়ে বাস করছেন তিনি। সেটা তিনি বুঝতে পারছেন না। উনার চতুর্দিকে যে সাঙ্গপাঙ্গ আছেন, ওরা চায় না ওরা নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে জিতে আসুক। ওরা ২০১৪ সালের মতো নমিনেশন পেপার সাবমিট না করে ক্ষমতায় আসতে চায়।’
জেএসডির প্রধান বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীকে ড. কামালের নেতৃত্বে গিয়ে আমরা বলেছি যে আমরা কোনো ষড়যন্ত্র, চক্রান্ত, জ্বালাও-পোড়াওতে নেই। আমরা নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে চাই। আমাদের কর্মীদের মামলা প্রত্যাহার করে নেন।’
রব বলেন, ‘খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবি তো কেবল বিএনপির না, দেশের জনগণের দাবি।’ তিনি আরো বলেন, ‘তফসিল বদলাতে হবে। নির্বাচনের তারিখ পরিবর্তন করতে হবে।’ আজ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নুরুল হুদা। জাতির উদ্দেশে ভাষণ দিয়ে তিনি তফসিল ঘোষণা করেন। উৎসঃ এনটিভি

মইনুল হোসেনের স্বাস্থ্যগত প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ
মানহানি ও ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় রংপুরের কারাগারে থাকা সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনের স্বাস্থ্য জরুরি ভিত্তিতে পরীক্ষা করার নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। একই সঙ্গে ওই স্বাস্থ্যগত প্রতিবেদন আগামী রোববারের মধ্যে দাখিল করতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। মইনুল হোসেনের স্বাস্থ্য ও নিরাপত্তা সংক্রান্ত দুটি রিট আবেদনের প্রাথমিক শুনানি নিয়ে গতকাল বিচারপতি সৈয়দ রেফাত আহমেদ ও বিচারপতি মো. ইকবাল কবিরের সমন্বয়ে হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেয়।

রংপুরের কারা কর্তৃপক্ষ এবং রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে এ নির্দেশ দেয়া হয়েছে। পাশাপাশি রংপুর থেকে অন্য কোনো জেলায় মইনুল হোসেনকে স্থানান্তর করতে হলে তার যথাযথ নিরাপত্তা দিতে বলা হয়েছে আদালতের আদেশে। আদালতে মইনুল হোসেনের পক্ষে শুনানি করেন সিনিয়র আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেন। তার সঙ্গে ছিলেন আইনজীবী মাসুদ রানা। অন্যদিকে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল কাজী জিনাত হক।

আইনজীবী মাসুদ রানা সাংবাদিকদের বলেন, রংপুরের আদালতে পুলিশ কাষ্টডিতে থাকা মইনুল হোসেনকে হাজির করার সময় তার ওপর যেভাবে আক্রমণ করা হয়েছে, তাতে নিরাপত্তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। তাছাড়া তার শারীরিক অবস্থার আরো অবনতি ঘটেছে। তিনি জানান, এসব বিষয় উল্লেখ করে মইনুল হোসেনের স্ত্রী সাজু হোসেন বুধবার দুটি রিট আবেদন করেন। এর প্রাথমিক শুনানি নিয়ে আদালত অন্তর্বর্তীকালীন আদেশ দিয়েছেন বলে জানান আইনজীবী মাসুদ রানা।
খবরটি শেয়ার করুন

About admin

Check Also

ভোটযুদ্ধের প্রস্তুতি : মনোনয়নপত্র সংগ্রহে বিএনপিতে রেকর্ড

আন্তর্জাতিক মহলের দৃষ্টি একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের দিকে। ইউরোপীয় পার্লামেন্টে বাংলাদেশ নিয়ে বিতর্ক শেষে ভোটাভুটির …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *