Home | সংবাদ | অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষককে রামদা দিয়ে কুপালো ডাকাতরা

অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষককে রামদা দিয়ে কুপালো ডাকাতরা

ময়মনসিংহ জেলার গফরগাঁও উপজেলার পাগলা থানার মশাখালী ইউনিয়নের মুখী সোনাতলা গ্রামে মঙ্গলবার রাতে এক দুর্ধর্ষ ডাকাতি সংঘঠিত হয়েছে। এসময় ডকাত দলের রাম দায়ের আঘাতে গৃহকর্তা অবসরপ্রাপ্ত স্কুল শিক্ষক আবুল হাসেম (৯০) গুরুতর আহত হয়েছেন। আহত স্কুল শিক্ষককে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, উপজেলার মুখী মমজান সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের অবসরপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আবুল হাসেমের মুখী সোনাতলা গ্রামের বাড়িতে মঙ্গলবার দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে ৮-১০জনের মুখোশধারী ডাকাতদল আবুল হাসেমের বাড়িতে হানা দেয়। গৃহকর্তা আবুল হাশেম বলেন, ডকাতদল ঘরের দরজা ভেঙ্গে প্রবেশ করে দেশীয় অস্ত্রে মুখে পরিবারের সবাইকে জিম্মি করে নগদ প্রায় ৪০হাজার টাকা, প্রায় দেড় লাখ টাকা মূল্যের স্বর্ণালংকার ও অন্যান্য মালামাল লুট করে নিয়ে যায়।

আহত শিক্ষকের ছেলে নজরুল ইসলাম বলেন আমার বাবাকে রাত ২.৩০ মিনিটে গ্রামের বাড়ী মুখী সোনাতুলা ৮/১০ জন ডাকাতের দল গেইট ভেঙ্গে ঘরে উঠে বাবাকে রাম দা দিয়ে ৩/৪ জন ডাকাত মাথায় ও শরীরে বিভিন্ন অংশে দারুণভাবে আঘাত করে । বাবার বয়স ৯০ বছর। কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে ডকাতরা রামদা দিয়ে আবুল হাশেমকে এলোপাথারি কুপিয়ে গুরুতর জখম করে। 

পাগলা থানার অফিসার ইনচার্জ মোখলেছুর রহমান আকন্দ বলেন, চুরি করার সময় দেখে ফেলায় গৃহকর্তাকে আহতের ঘটনা ঘটেছে । ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে।

About admin

Check Also

উল্টো যেতে বাধা দেয়ায় পুলিশ কর্মকর্তার পা থেঁতলে দিল মন্ত্রণালয়ের বাস!

ট্রাফিক পুলিশ কর্মকর্তা দেলোয়ার হোসেনকে ইচ্ছাকৃতভাবে চাপা দিয়ে পা থেঁতলে দেয়ার পর চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি হৃদরোগে আক্রান্ত হয়েছেন। এমন পরিস্থিতিতে তার জীবন নিয়ে শঙ্কা তৈরি হয়েছে। তিনি এখন স্কয়ার হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে ভর্তি রয়েছেন। চিকিৎসকদের বরাত দিয়ে পরিবার বলছে, দেলোয়ারের অবস্থা শঙ্কটাপন্ন। তার জীবন বাঁচানোটাই এখন মুখ্য বিষয়। দেশের বাইরে নিয়ে তার উন্নত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *