Home | টেলিগ্রাফ | শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে ছুরি বোমা নিয়ে সন্ত্রাসী হামলা

শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে ছুরি বোমা নিয়ে সন্ত্রাসী হামলা

সারা দেশে চলমান কোটা সংস্কার আন্দোলনের প্রতি একত্বতা জানিয়ে ক্লাস পরীক্ষা বর্জন করে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেমুরবিপ্রবি) শিক্ষার্থীরা ক্যাম্পাস সংলগ্ন ঢাকা-খুলনা মহাসড়ক অবরোধ করে।

মহাসড়কে অবস্থান নিয়ে আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা ‘বঙ্গবন্ধুর বাংলায় বৈষম্যের ঠাই নাই’, ‘ ম তে মতিয়া, মতিয়া তুই রাজাকার তুই রাজাকার’, বোনের উপর হামলা কেন প্রসাশন জবাব চাই’, সহ নানা স্লোগান দিতে থাকে।
শান্তিপূর্ণ আন্দোলন চলাকালীন সময় দুপুর ১ টার দিকে এই আন্দোলনকে বানচাল করার জন্য কিছু সংখ্যক সন্ত্রাসী ছুরি, বোমা ও দেশীয় অস্ত্রসহ আন্দোলনকারীদের মাঝে প্রবেশ করে। আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্য ভিসি প্রফেসর ড. খোন্দকার নাসিরউদ্দিন বক্তব্য দেওয়ার সময়ে সন্ত্রাসীরা দেশীয় অস্ত্র নিয়ে হামলা করতে গেলে শিক্ষার্থীদের হাতে ধরা পড়ে। এসময়ে অস্ত্রসহ দুইজন সন্ত্রাসীকে গনপিটুনি দিয়ে পুলিশের হাতে সোর্পদ করে।
এসময়ে আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের মাঝে চরম উত্তেজনা ও ক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে । তারা সন্ত্রাসীদের দ্রুত আইনের আওতায় নিয়ে বিচারের দাবীসহ নানা ধরনের স্লোগান দিতে থাকে। উৎস- পুর্ব পশ্চিম বিডি

স্বাস্থ্য তথ্য- যেভাবে ক্যানসার থেকে নিজ পরিবারকে সুরক্ষিত রাখবেন
ক্যানসার। মারণ রোগের তালিকায় সর্বপ্রথম এই নামটিই মাথায় চলে আসে। স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের মতে, জেনেটিক কারণে ক্যানসার হতে পারে। বংশানুক্রমে ক্যানসারে আক্রান্ত ব্যক্তিদের থেকে এই রোগ সুস্থ মানুষের দেহে দানা বাঁধতে পারে।
তবে একটু সচেতন হলেই ক্যানসারের মতো রোগকে প্রতিহত করা যায়৷ সেজন্য কিছু বিষয়ের উপর নজর রাখতে হবে। এ বিষয়ে ভারতীয় ড: প্রমোদ কুমার জুলকা, সিনিয়র ডিরেক্টর (ওকোলজি ডেভিস সেন্টার, ম্যাক্স সুপার স্প্যানিশ হাসপাতাল) তার এক বক্তব্যে বলেন, ক্যানসারের জন্য যদিও অনেক কারণ দায়ী যেগুলো ক্যানসারের ঝুঁকি বাড়ায়। তার মধ্যে অন্যতম কারণ হিসেবে থাকছে খাদ্যভ্যাস, লাইফস্টাইল ও শারীরিক কার্যকলাপের অভাব।

উত্তরাধিকার সূত্রে পাওয়া ক্যানসারের ধরন গুলো হলো: একটি গবেষণা থেকে এই তথ্য উঠে এসেছে, উত্তরাধিকার সূত্রে ক্যানসারের ঝুঁকি বাড়ানোর জন্য অনেক কারণ থাকতে পারে। ব্রেস্ট ক্যানসার, প্রসেস্ট ক্যানসার, ওভারিয়ান ক্যানসার, কলোরেক্টাল ক্যানসার এগুলো ছাড়াও আরো কিছু ধরনের ক্যানসার আছে যা নতুন প্রজন্মের উপর প্রভাব ফেলতে পারে। দেহে কিছু অস্বাভাবিক কোষের উপস্থিতি ক্যানসারের রিস্ক বাড়াতে পারে। যা বাবা-মায়ের থেকে সন্তানদের মধ্যে আসতে পারে। যদি স্পার্ম সেলের জিন ক্যানসার এফেক্টেড হয় তবে সন্তানের দেহে মধ্যে ক্যানসারের প্রবণতাকে বাড়িয়ে তোলে। এই জিনগুলিকে উত্তরাধিকার সূত্রে পাওয়া ক্যানসারের জিন বলা হয়।

উত্তরাধিকার সূত্রে পাওয়া ক্যানসার প্রতিরোধের উপায় গুলো হলো: রেগুলার চেক আপ-ডক্টরদের মত অনুযায়ী, খুব কম বয়সেও ক্যানসার হতে পারে। রেগুলার চেক আপ অনেকটা ক্যানসারের ঝুঁকি কমায়। রেগুলার চেক আপের ফলে ক্যানসার প্রথম স্টেজেই ধরা পড়ার চান্স থাকে। ফলে দ্রুত চিকিৎসা এবং সেরে ওঠার সম্ভাবনা থাকে। যদি পরিবারে কেউ ক্যানসারের আক্রান্ত হন তবে ৬ মাস অন্তর একবার চেক-আপ করানোর প্রয়োজন রয়েছে।

লাইফস্টাইল পরিবর্তন: শরীরচর্চা ভীষণ জরুরি। লবণযুক্ত খাবার, জাঙ্ক ফুড সম্পূর্ণভাবে বর্জন করাই শ্রেয়। এক্ষেত্রে, নিজের ওজনকে নিয়ন্ত্রণে রাখাটাও জরুরি। এই ধরনের কিছু নিয়ম মেনে চললেই ক্যানসারকে অনেকাংশে প্রতিরোধ করা সম্ভব। সর্তকতা-সবশেষে সর্তকতা। সাধারণ মানুষকে এই বিষয়টি সর্ম্পকে সচেতন করে তুলতে হবে। সকলের মিলিত প্রচেষ্টার ফলেই ক্যানসার দূর হবে। তবে, সব ধরনের টিউমার ক্যানসার হয় না। অনেক ক্যানসার আছে যা প্রতিরোধযোগ্য। তার জন্য প্রয়োজন সচেতনতা, সঠিক পদক্ষেপ।
খবরটি শেয়ার করুন

Related

About admin

Check Also

তারা কোন চেতনায় বিদেশীদের কাছে সন্তানদের বিয়ে দিচ্ছেন?

বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, আমি চ্যালেঞ্জ দিয়ে বলছি তারেক রহমান লন্ডনে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *