Home | জাতীয় | আমি হয়ত কালকে কী বলে ফেলেছি : অর্থমন্ত্রী

আমি হয়ত কালকে কী বলে ফেলেছি : অর্থমন্ত্রী

বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে নতুন করের আওতায় আনা হবে জানিয়ে দেওয়া বক্তব্য এক দিনের মাথায় পরিবর্তন করেছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত। তিনি বলেছেন, ভ্যাট নয়, বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে তাদের লাভের ওপর আয়কর দিতে হবে।

এর আগে, মঙ্গলবার (১০ এপ্রিল) সকালে একনেকে এ বিষয়ে আলোচনায় বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের আয়ের ওপর কোনো ধরনের কর আরোপের সম্ভাবনা নাকচ করে দেন খোদ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

আগামী অর্থবছরের বাজেট নিয়ে সোমবার সম্পাদকদের সঙ্গে এক মতবিনিময়ে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেন, বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের মালিকদের কাছ থেকেও ভ্যাট নেয়া হবে।

মঙ্গলবার সচিবালয়ে এক অনুষ্ঠানে এ বিষয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী বলেন, “প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয় মেইকিং প্রফিট, সেই প্রফিটের ওপর ইনকাম ট্যাক্স হবে, ভ্যাট হবে না। ইয়েস, ইনকাম ট্যাক্স দিতে হবে।”

গতকালের ‘ভ্যাট দিতে হবে’ বক্তব্যের ব্যাখ্যা দিতে গিয়ে মুহিত বলেন, “আমি হয়ত কালকে কী বলে ফেলেছি। একবার হয়ত আমরা ভ্যাট ইম্পোজ করেছিলাম, পরে সেটা অ্যক্টিভেট করি নাই। সাধারণত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান দেয় না, তারা যে চার্জ-টার্জ করে সেটা দিয়ে তো প্রফিট করে।”

২০১৫ সালে বেসরকারি উচ্চ শিক্ষায় সরকার ভ্যাট আরোপ করলে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীরা আন্দোলনে নামে। সেই আন্দোলনের মুখে সরকার পিছু হটতে বাধ্য হয়। ‘নো ভ্যাট অন এডুকেশন’ নামের ওই আন্দোলনের ওই উদ্যোক্তারা ইতোমধ্যে অর্থমন্ত্রীর বক্তব্যের প্রতিবাদ জানিয়ে বলেছেন, সরকার নতুন করে আবার কর আরোপের পরিকল্পনা করলে আন্দোলনের মাধ্যমে তা প্রতিহত করবেন তারা।

অর্থমন্ত্রীর সোমবারের ওই বক্তব্য নিয়ে মঙ্গলবার একনেক বৈঠকেও আলোচনা হয়েছে বলে সাংবাদিকদের জানান পরিকল্পনা মন্ত্রী মুস্তফা কামাল। তিনি বলেন, “প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, আপাতত বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের ওপর কোনো ধরণের কর আরোপ করা হবে না। শিক্ষার প্রসারে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের সব ধরণের আয় করমুক্ত থাকবে।”

অন্যদিকে, আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এক বিবৃতি দিয়ে বলেছেন, ‘বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ওপর কর আরোপ সংক্রান্ত অর্থমন্ত্রীর বক্তব্য একান্তই তার ব্যক্তিগত; তা সরকারের ভাষ্য নয়।’

About admin

Check Also

‘বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট এর টাকা ১৫ বছরেও তুলে আনা সম্ভব হবে না’

কাগজে কলমে সাত বছরের কথা বলা হলেও বঙ্গবন্ধু-১ স্যাটেলাইট এর ব্যয়ের তিন হাজার কোটি টাকা …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *