Breaking News
Home | বিনোদন | শাকিব অপুর দেনমোহর: ৭ লাখ ১ টাকা নাকি ১ কোটি ৭ লাখ টাকা কোনটা সত্য?

শাকিব অপুর দেনমোহর: ৭ লাখ ১ টাকা নাকি ১ কোটি ৭ লাখ টাকা কোনটা সত্য?

শাকিব অপুর দেনমোহর: ৭ লাখ ১ টাকা নাকি ১ কোটি ৭ লাখ টাকা কোনটা সত্য? প্রেম, ৮ বছরের গোপন বিয়ে ও সন্তান হওয়ার খবর নিয়ে এ বছরের এপ্রিলে দেশের গণমাধ্যমে রীতিমত তোলপাড় তুলেছিলেন ঢাকাই চলচ্চিত্রের আলোচিত মুখ শাকিব-অপু দম্পতি। বছর শেষে ফের আলোড়ন তুললেন তারা। তবে এবার ডিভোর্সের খবর নিয়ে। শাকিব ইতোমধ্যেই অপুকে ডিভোর্স লেটার পাঠিয়ে দিয়েছে। সবকিছু ঠিক থাকলে খুব শিগগির আনুষ্ঠানিকভাবে বিচ্ছেদ হতে যাচ্ছে তাদের।

তবে বেশকিছু বিষয় নিয়ে শুরু হয়েছে বিতর্ক। এরমধ্যে প্রধান বিতর্ক এবার তাদের ‘দেনমোহর’ নিয়ে।   শাকিবকে ভালোবেসে ধর্মান্তরিত হয়ে ২০০৮ সালের ১৮ এপ্রিল( শাকিবের ডিভোর্স লেটারে বলা হয়েছে ১৬ মার্চ) গোপনে বিয়ে করেন অপু বিশ্বাস। কাগজে পত্রে নাম পরিবর্তন করে রাখেন অপু ইসলাম খান। মুসলিম শরীয়াহ মোতাবেক বিয়ে হয় তাদের। দেনমোহর দিয়েই অপু বিশ্বাসকে বিয়ে করেন শাকিব। এতোদিন দেনমোহরের কথা না উঠলেও এবার শাকিব-অপুর ডিভোর্সের বিষয়টি যখন প্রায় নিশ্চিত তখন অপু ও শাকিবের মধ্যে ‘দেনমোহর’-এর অর্থের পরিমাণ নিয়ে শুরু হয়েছে দ্বন্দ্ব। দেন মোহরের অর্থের পরিমাণ নিয়ে শাকিব বলছেন এক কথা, আবার অপু বিশ্বাস বলছেন আরেক কথা। আসলে শাকিব-অপুর বিয়েতে দেনমোহরের পরিমাণ কতো ছিল? দেনমোহড় হিসেবে শাকিব বলছেন ৭ লাখ ১ টাকা, অন্যদিকে অপু বলছেন দেনমোহরের পরিমাণ ছিলো ১ কোটি সাত লাখ টাকা! অর্থের দিক দিয়ে যা আকাশ-পাতাল ব্যবধান। প্রশ্ন উঠছে, দেনমোহর নিয়ে অসত্য উচ্চারণ কে করছেন? শাকিব না অপু? তবে কেউ নিজেদের দাবীকৃত দেনমোহড়ের সাপেক্ষে এখনো কোন প্রমাণ দেখাতে পারেন নি।

আরেকটি সূত্রে জানা গেছে, শাকিব-অপুর নাকি আসলে বিয়েই হয় নি। তাদের দীর্ঘদিনের অবৈধ মেলামেশার ফল তাদের সন্তান। কেননা নিয়ম অনুসারে ডিভোর্স লেটার পাঠাতে হলে বিয়ের কাবিননামার ফটোকপিও তার সঙ্গে দিতে হয়। অপুকে দেয়া শাকিবের ডিভোর্স লেটার অপুর বাসা, গ্রাম ও সিটি কর্পোরেশনে পাঠানো হলেও কোন কাবিননামা ছিল না। অন্যদিকে অপু জানিয়েছে তার কাছেও কোন কাবিন নামা নেই। অপুর দাবি শাকিবের গ্রামের বাড়ি গোপালগঞ্জ থেকে আানা কাজী বিয়ে পড়ালেও সেটা এখন অস্বীকার করছেন শাকিব। তার মতে কাজী এসেছিল বগুড়া থেকে।   এ ব্যাপারে শাকিব খানের আইনজীবী সিরাজুল ইসলামের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে চলমান ‘দেনমোহর’ বিতর্ক প্রসঙ্গে তিনি বলেন, সাত লাখ এক টাকার দেনমোহর দিয়ে অপুকে বিয়ে করেছেন শাকিব খান।

ডিভোর্স হলে সে টাকা তিনি অপুকে দিয়ে দিতে প্রস্তুত। এমনটাই তিনি আমাকে জানিয়েছেন। কিন্তু অপু বিশ্বাস এখন যে ‘এক কোটি সাত লাখ’ টাকা দেনমোহর হিসেবে দাবী করছেন এ ব্যাপারে আমার কিছু জানা নেই। প্রমাণ আছে কিনা এটাও জানি না। কিন্তু সাত লাখ এক টাকা যে তাদের দেনমোহর ছিল এ ব্যাপারে শাকিব খান কি কাগজে কলমে আপনাদের কোনো প্রমাণ দেখিয়েছেন?-এমন প্রশ্নে আইজীবী জানান, না। এমন প্রমাণ দেখাননি। দেনমোহরের কোনো কাগজপত্র আমি দেখেনি। মৌখিকভাবে বলেছে।   কিন্তু এখন যেহেতু এই বিষয়টি নিয়ে তর্ক, বিতর্ক হচ্ছে সেক্ষেত্রেতো কাগজে কলমের প্রমাণটাই বিবেচ্য হবে? অপু যদি ‘এক কোটি সাত লাখ’ টাকা দেনমোহরের কোনো হলফনামা দেখাতে পারে, তখন?-এমন প্রশ্নে শাকিবের আইনজীবী বলেন, শুধু অপু বিশ্বাস নয়, এক্ষেত্রে যিনিই আদালতকে এমন প্রমাণ দিতে পারবেন সুষ্ঠু বিচার তার দিকেই যাবে। আর এগুলো শাকিব-অপুর নিজস্ব ব্যাপার।

About admin

Check Also

‘তাজিনের মৃত্যুর জন্য বাপ্পা দায়ী?’

তাজিন আহমেদের মৃত্যু নিয়ে অন্য কথা বলছেন চাঁদনী। তিনি বলেন,‘ আমার বাপকে হারিয়ে ফেলেছি। তাজিন …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *