Home | সারাদেশ | ‘জীবন ঝুঁকির মুখে পড়লেও শিক্ষার্থীদের জীবনের কথা ভেবে সেদিন পুলিশ ডাকিনি’

‘জীবন ঝুঁকির মুখে পড়লেও শিক্ষার্থীদের জীবনের কথা ভেবে সেদিন পুলিশ ডাকিনি’

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান জানিয়েছেন, নিজের ও পরিবারের জীবন ঝুঁকির মুখে পড়লেও ভবনের বাইরে অবস্থানরত ছাত্রছাত্রীদের জীবনের কথা ভেবে সেদিন পুলিশের সহযোগিতা নেয়নি।

মঙ্গলবার নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট ভবনে ‘উপাচার্যের প্রতি বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারের সংহতি প্রকাশ’ অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন তিনি। এর আগে রবিবার মধ্যরাতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের বাসভবনে হামলা, অগ্নিসংযোগ, লুটতরাজ’র ঘটনার মর্মস্পর্শী বর্ণনা দেন আজকের এই অনুষ্ঠানে।

সভায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা উপাচার্য ভবনে নারকীয় হামলা, ভাঙচুর ও লুটপাটের ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান। তারা অবিলম্বে দোষীদের খুঁজে বের করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি প্রদানের দাবি জানান। ধৈর্য, প্রজ্ঞা ও সাহসিকতার সঙ্গে পরিস্থিতি মোকাবেলার জন্য তারা উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামানকে ধন্যবাদ জানান।

ঢাবি উপাচার্য বলেন, রবিবার মধ্যরাতে বাসভবনে হামলার ঘটনাকে বিশ্ববিদ্যালয় তথা দেশকে অশান্ত করার চক্রান্ত। প্রশিক্ষিত সন্ত্রাসীরা প্রাণনাশের উদ্দেশ্যেই এই হামলা ও তাণ্ডবলীলা চালিয়েছিল।

সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. এ এস এম মাকসুদ কামালের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াতুল ইসলামের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন প্রো-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক ড. নাসরীন আহমাদ, সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ড. এ কে আজাদ চৌধুরী, জীববিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. মো. ইমদাদুল হক প্রমুখ।

প্রসঙ্গত, চাকরিতে কোটা সংস্কারের দাবিতে শিক্ষার্থী ও চাকরিপ্রার্থীদের আন্দোলনের মধ্যেই রবিবার গভীর রাতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের বাসভবনে ব্যাপক ভাঙচুর চালানোর ঘটনা ঘটেছে। এ সময় উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আক্তারুজ্জামানের বাসভবনের গেট ভেঙে দুটি গাড়ি পুড়িয়ে দেয়া হয়। এছাড়া উপাচার্যের বাসভবনের ওপরের ও নিচতলায় ব্যাপক ভাঙচুর চালানো হয়। তবে এই ঘটনায় কেউ আহত হননি।

About admin

Check Also

খাল উচ্ছেদে সেলিম, শামীমকে ‘শ্রমিকলীগ নেতা’র বাধা!

অবৈধভাবে দখলে নেয়া খালের উপর স্থাপনা উচ্ছেদ করতে গিয়েছিলেন নারায়ণগঞ্জের আলোচিত দুই সংসদ সদস্য এবং …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *