Home | বিডিটুডে | ’আমার আত্মীয়রা কেউ এখন আর আমার কাছে আসে না’

’আমার আত্মীয়রা কেউ এখন আর আমার কাছে আসে না’

দিনাজপুরে এক গৃহবধূ গণধর্ষণের অভিযোগে ৪ জনকে আসামি করে মামলা হয়েছে। তবে আসামিরা এখনো ধরা ছোঁয়ার বাইরে। আসামিদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন এলাকাবাসী।
গত ৮ এপ্রিল সকালে দিনাজপুর সদর উপজেলায়, একটি ভুট্টাক্ষেতের পাশে কাজ করছিলেন এক গৃহবধূ। এ সময় নুর ইসলাম, ইউসুফ আলী, মোস্তফা ও মনির হোসেন নামে ৪ যুবক তাকে তুলে নিয়ে কাপড় দিয়ে মুখ বেঁধে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেছেন স্বজন ও এলাকাবাসী।

৩ জন এলাকাবাসী বলেন, ‘চারজন মিলে একটা মেয়েকে ধর্ষণ করে ফেলে। আমরা তাহলে কিভাবে মেয়ে সন্তানদের নিয়ে বাস করবো।’
নির্যাতিতা বলেন, ‘আমার হাত ধরে টেনে জোর করে ভুট্টাক্ষেতে নিয়ে গেল। ভুট্টাক্ষেতে নেয়ার পর যখন আমি যখন ছুটাতে চাইলাম তখন ইউসুফ আমার মুখে ওড়নাটা চেপে ধরে। এই এক ঘটনার কারণে আমার বাবা-মা, চাচা-চাচী কেউ এখন আর আমার কাছে আসে না।’
এদিকে, জড়িতদের দ্রুত আইনের আওতায় আনার দাবি জানিয়েছেন জেলা মহিলা পরিষদের এই কর্মকর্তা।
বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ সাধারণ সম্পাদক ড. মারুফা বেগম বলেন, ‘আমরা মনে করি যারা এই কাজ করেছে তাদের শাস্তি হওয়া উচিত।
এ ঘটনায় মঙ্গলবার রাতে নির্যাতিতা বাদী হয়ে ৪ জনকে আসামি করে সদর থানায় একটি মামলা করেন।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শাহফুজ আশরাফ বলেন, ‘চারজন আসামির বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। আমরা দ্রুতই এদের ধরার চেষ্টা করছি।’
ঘটনার পর অভিযুক্ত মামলার ৪ আসামি পলাতক রয়েছে।somoynews
নিজ কার্যালয়ে ডেকে নিয়ে গৃহবধূকে ইউপি চেয়ারম্যানের ধর্ষণফেনীতে ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের এক নেতার বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় মামলা হওয়ার পর তাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। নির্যাতিতাকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
স্বজনরা জানান, বুধবার বিকেলে পারিবারিক কলহের জেরে সালিশি বৈঠককে কেন্দ্র করে স্থানীয় এক গৃহবধূকে নিজ কার্যালয়ে ডেকে নিয়ে ধর্ষণ করে ফুলগাজী সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নুরুল ইসলাম। নির্যাতিতা গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন স্বজনরা। এ ঘটনায় অভিযুক্ত চেয়ারম্যানের শাস্তি দাবি জানিয়েছেন তারা।

নির্যাতিতা বলেন, আমার ভাগিনাকে নিয়ে গেছিলাম। আমার ভাগিনাকে সিগারেট আনার কথা বলে বের করে দেয়। পরে আমার সঙ্গে অনেক অসভ্যতা করেছে।’
নির্যাতিতার স্বামী বলেন,
সদর হাসপাতাল জুনিয়র কনসালটেন্ট ডা. তাহিরা খাতুন রোজী বলেন, ‘নির্যাতিতা একজন নারী এসেছে। আমরা পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য সব কিছু নিয়েছি। পরে আরো কিছু পরীক্ষা-নিরীক্ষা করার পর জানানো যাবে।’
এ ঘটনায় নির্যাতিতার শাশুড়ি বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেন।

About admin

Check Also

ডাস্টবিনে কুকুরে খুবলে খেল জীবিত নবজাতক

গাজীপুরে ডাস্টবিনে ফেলে যাওয়া এক নবজাতককে খুবলে খাওয়ার সময় কুকুরের মুখ থেকে মঙ্গলবার দুপুরে উদ্ধার করেছে স্থানীয়রা। বিকালে নবজাতকটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায়। স্থানীয় জালাল উদ্দিন মাস্টার স্কুলের আয়া শাহনাজ পারভীন জানান, মঙ্গলবার দুপুরে স্কুল থেকে গাজীপুর সিটি করপোরেশনের পশ্চিম বিলাসপুর এলাকার বাসায় ফিরেন তিনি। এসময় বাড়ির পার্শ্ববর্তী জালাল মার্কেটের সাম

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *